স্ত্রীর কোন স্থানে চুম্বন ও স্পর্শ স্বামীর বেশি পছন্দ

Spread the love

স্বামী ও স্ত্রীর সহবাস একটি পবিত্র বন্ধন। এই সুখের ক্ষেত্রে স্ত্রীকে আগে জেনে নিন। অর্থাৎ স্ত্রীর কোন স্থানে আদর করলে সে বেশি আনন্দ ও সুখ অনুভব করবে তা আপনাকে জেনে নিতে হবে। একই ভাবে স্ত্রীদের ক্ষেত্রেও এটি লক্ষনিয়।

স্বামী ও স্ত্রী প্রথম কয়েকদিনেই জেনে নিবেন কোন স্থানে চুম্বন ও স্পর্শ আপনার সঙ্গী পছন্দ করে। ওই সমস্ত স্থানে অধিক মনোযোগ দিবেন। একই সঙ্গে অবশিষ্ট শরীরে সোহাগ করবেন। তবে নারীসুলভ কোমলতায়। স্বামী উগ্রভাবে আদর করলেও স্ত্রীর উচিত হবে স্পর্শে কোমলতা বজায় রাখা।

তবে চুম্বনে স্বামীর সাথে সমভাবে অংশগ্রহণ করবে এমনকি চুম্বনের প্রতিযোগিতা করবে। স্বামীকে আদরের সময় মৃদুভাবে অণ্ডথলিতে স্পর্শ করে রাখলে স্বামী স্ত্রীর ভক্ত হয়ে যায়। তবে সাবধান থাকবে, কেননা অণ্ডোথলি অত্যন্ত স্পর্শকাতর ও অতি মৃদু আঘাতেও মারাত্মক যন্ত্রণা হতে পারে।

স্বামীর আনন্দ স্ত্রীর যোনিগহবরে প্রবেশের মাধ্যমে। কিন্তু স্বামী অনেক সময় জানে না যে স্ত্রীর আনন্দ সহবাসের পূর্বে আদর সোহাগে। তাই এই বিষয়ে অসন্তুষ্টি থাকলে স্বামীকে খুলে বলতে হবে এবং নিজের চাহিদা স্বামীর গোচরে আনতে হবে। ২৫ বছরের কম বয়সী পুরুষ সাধারনত বেশি সময় নিয়ে মিলন করতে পারে না। তবে তারা খুব অল্প সময় ব্যাবধানে পুনরায় উত্তেজিত/উত্তপ্ত হতে পারে। ২৫ এর পর বয়স যত বাড়বে মিলনে পুরুষ তত বেশি সময় নেয়।