ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে পেঁপের ফলাফল

Spread the love

পেঁপে শরীরের জন্যে অনেক উপকারী, পাশাপাশি রূপচর্চাতেও ভালো ফলাফল দেয়। তাই আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে পেঁপে ব্যবহার করুন-

আসুন জেনে নি কীভাবে ত্বকে পেঁপে ব্যবহার করতে হয় :

প্রথম দিন-

পাকা পেঁপে পিষে তা মুখে প্যাকের মতো লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর শুকানো শুরু করবে, তখন স্ক্রাব করে উঠিয়ে নিন। মাস্ক তুলে নেওয়ার পরে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

দ্বিতীয় দিন-

পেঁপের শ্বাসের পরিবর্তে পেঁপের রস মুখে লাগান। ১০ মিনিট পরেই তা শুকিয়ে যাবে এবং ত্বক টান টান ও মসৃণ লাগবে। ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে নিন।

দুদিন ব্যবহারের পরে আবার পেঁপে ব্যবহারে মুখের ত্বক অনেক কোমল ও মসৃণ লাগে। পেঁপের ফ্লাভানয়েড ত্বকের কোষকলার উৎপাদন বাড়ায়। ফলে ত্বক নরম ও মসৃণ হয়।

তৃতীয় দিন-

পেঁপে ও একটা লেবুর অর্ধেক মিশিয়ে ত্বকে প্যাকের মতো ব্যবহার করুন। ১৫ মিনিট পরে সাধারণ পানি দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে নিন।

চতুর্থদিন-

একইভাবে লেবু ও পেঁপে ত্বকে লাগান। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

পঞ্চম দিন-

দেখবেন যে, ত্বকের রং অন্যান্য সময়ের তুলনায় অনেকটা হালকা লাগছে এবং ত্বকের পোড়াভাব কমে গেছে। পেঁপেতে আছে ত্বকের রং ফর্সাকারী উপাদান এবং প্রাকৃতিক এনজাইম যা রোদে পোড়াভাব দূর করে ত্বককে নবজীবন দেয়। লেবুতে আছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং যা ত্বকে জাদুর মতো কাজ করে।

ষষ্ঠ দিন-

একটা ডিম, পেঁপের মাস্ক তৈরিতে ব্যবহার করুন। ডিমের সাদা অংশ ও কয়েক টুকরা পাকা পেঁপে ভালোভাবে মিশিয়ে প্যাকের মতো করে মুখে লাগান।

সপ্তম দিন-

রাতে আবার ডিম ও পেঁপের তৈরি মাস্ক ত্বকে লাগান। এতে ত্বক আগের চেয়ে আরও বেশি টানটান ও মসৃণ লাগবে। পেঁপের এনজাইম ত্বকের ঝুলে পড়া রোধ করে টানটানভাব আনে।

একটানা সাতদিন পেঁপে খাওয়া ওজন কমায়। পাশাপাশি ত্বকে ব্যবহারে তা ত্বককে নরম, কোমল, টানটান ও উজ্জ্বল করে তোলে।