কে এই প্রীতি জিনতা (ভিডিও)

Spread the love

প্রীতি জিনতা। বলিউডের এক সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা। সদা হাস্যোজ্বল এই অভিনেত্রী সিনেমহলে পেয়েছেন বলিউড ডিম্পলকন্যার খেতাব। গালে টোল পড়া মিষ্টি হাসি দিয়ে চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মন জয় করা এই তারকার আজ জন্মদিন।

হিমাচল প্রদেশের শিমলা শহরে জন্ম নেওয়া প্রীতি ইংরেজি ও অপরাধ মনোবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের পর ১৯৯৮ সালে ‘দিল সে’ চলচ্চিত্র দিয়ে বড় পর্দায় আবির্ভূত হন। একই বছর ‘সোলজার’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন তিনি। এই চলচ্চিত্রগুলোতে অভিনয়ের জন্য প্রীতি শ্রেষ্ঠ নবাগত অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি কিশোরী একক মাতা চরিত্রে ক্যায়া কেহনা (২০০০) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

জিনতা ২০০৩ সালে নাট্যধর্মী ‘কাল হো না হো’ সিনেমাতে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন। তিনি পরবর্তীতে টানা দুই বছর ভারতের সর্বাধিক ব্যবসাসফল দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন, প্রথমটি ২০০৩ সালে বিজ্ঞান কল্পকাহিনীধর্মী ‘কোই মিল গয়া’ এবং দ্বিতীয়টি ২০০৪ সালে প্রণয়ধর্মী ‘বীর-জারা’। তিনি স্বাধীন আধুনিক ভারতীয় নারী চরিত্রে ‘সালাম নমস্তে’ (২০০৫) ও ভারতের বাইরে সর্বাধিক আয়কারী ‘কভি আলবিদা না কেহনা’ (২০০৬) সিনেমাতে কাজ করেন। তার প্রথম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র ছিল কানাডীয় চলচ্চিত্র ‘হ্যাভেন অন আর্থ’, যার জন্য তিনি ২০০৮ সালে শিকাগো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব থেকে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জন্য সিলভার হুগো পুরস্কার লাভ করেন।

অভিনয়ের পাশাপাশি আইপিএলে কিংস ইলাভেন পাঞ্জাবের কর্ণধারও প্রীতি জিনতা। জন্মদিনে বলিউডসহ ভারতের ক্রিকেট অঙ্গনের তারকারাও তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়া, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে ভক্তদের শুভেচ্ছা-ভালোবাসায় ভাসছেন প্রীতি।

প্রীতি জিন্টা ১৯৭৫ সালের ৩১শে জানুয়ারি হিমাচল প্রদেশের শিমলা জেলায় এক রঢ়ু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা দুর্গানন্দ জিন্টা ছিলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা। প্রীতির যখন ১৩ বছর বয়স, তখন তিনি এক গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান। এই দুর্ঘটনাকালে তার মাতা নিলপ্রভাও সেই গাড়িতে ছিলেন। তিনি গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন এবং টানা দুই বছর শয্যাশায়ী ছিলেন।

১৯৯৭ সালে জিনতা তার এক বান্ধবী অডিশন দিতে গেলে তিনি তার সাথে যান, সেখানে তার শেখর কাপুরের সাথে সাক্ষাৎ হয়। কাপুর তাকেও অডিশন দিতে বলেন। তার অডিশন দেখে কাপুর তাকে অভিনেত্রী হওয়ার উপদেশ দেন। মূলত শেখর কাপুরের তারা রাম পাম পাম ছবিতে হৃতিক রোশনের বিপরীতে তার অভিষেক হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু সিনেমাটির নির্মাণ কাজ পিছিয়ে যায়। কাপুর পরবর্তীতে মণি ‘রত্নমের দিল সে’ সিনেমার জন্য তার নাম সুপারিশ করেন।

২০১৬ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি লস অ্যাঞ্জেলেসে জিনতা তার দীর্ঘদিনের মার্কিন সঙ্গী জিন গুডএনাফকে বিয়ে করেন।